শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ই সফর, ১৪৪৩ হিজরী
শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

শরীয়তপুরের ডাক্তার ফারুক হোসেন মুন্সী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে সহযোগী অধ্যাপক

শরীয়তপুরের ডাক্তার ফারুক হোসেন মুন্সী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে সহযোগী অধ্যাপক

শরীয়তপুরের কৃতি সন্তান ডাক্তার মোঃ ফারুক হোসেন মুন্সী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ইউরোলজী বিভাগে সহযোগী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পেয়েছেন। তিনি নড়িয়া উপজেলার হাইলসার গ্রামের মরহুম লোকমান হোসেন মুন্সী ও সখিনা বেগমের সুযোগ্য পুত্র।

ডাক্তার মোঃ ফারুক হোসেন মুন্সী জন্ম -০২ সেপ্টেম্বর ১৯৭৬ইং মুসলিম পরিবারে আদর্শবান পিতা মাতার ঘরে জন্ম গ্রহন করেন। তিনি হালইসার নন্দনসার প্রাইমারী স্কুলে ৫ম শ্রেনী পর্যন্ত লেখাপড়া করেন। ১৯৮৮ইং সালে অস্টম শ্রেনীতে শরীয়তপুর জেলায় ১ম স্থান অধিকার করে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পান। তিনি ১৯৯১ইং সালে সুরেশ্বর উচ্চ বিদ্ব্যালয় থেকে এসএসসি পাশ করেন। ১৯৯৩ইং সালে তিনি নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন। ২০০০ইং ও ২০০১ইং সালে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ ছাত্র সংসদের জিএস ছিলেন। ২০০২ইং সালে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাশ করেন। ২০১৬ইং সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইউরোলজীতে এমএস ডিগ্রী অর্জন করেন। পরিবারের ছয় ভাইয়ের মধ্যে তিনি ৫ম।

পরবর্তীতে ২০১৬ইং সালে তিনি ইউরোলজী বিভাগে সহকারী অধ্যাপক পদে নিয়োগপ্রাপ্ত হন। চলতি বছর ৫ সেপ্টেম্বর তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে একই বিভাগে সহযোগী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পান।

তার স্ত্রী বিশিষ্ট রেডিওলজিষ্ট ডাঃ সেলিনা রহমান বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর (অবঃ) খলিলুর রহমানের কন্যাও চলতি বছর ৫ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে রেডিওলজী ও ইমেজিং বিভাগে সহকারী অধ্যাপক পদে নিয়োগপ্রাপ্ত হন। ব্যক্তি জীবনে ডাঃ মোঃ ফারুক হোসেন মুন্সী ও ডাঃ সেলিনা রহমান দম্পতি ৩ (তিন) ছেলে সন্তানের জনক।

ডাঃ মোঃ ফারুক হোসেন মুন্সী ২০১৮ইং সালে মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত এশিয়ান ইউরোলজীক্যাল এসোসিয়েশন (এ.ইউ.ই) থেকে ইয়ং ইউরোলজী এওয়ার্ড লাভ করেন। দেশে বিদেশে তাহার চিকিৎসা সংক্রান্ত ২০টি গবেষনাপত্র প্রকাশিত হয়েছে। তিনি বর্তমানে বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব ইউরোলজীক্যাল সার্জনস এর অফিস সেক্রেটারীর দায়িত্ব পালন করছেন। চিকিৎসা জীবনের শুরু থেকেই তিনি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত আছেন এবং এলাকাবাসীকে নিরলসভাবে চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছেন। নিজ এলাকার সাধারণ মানুষের কাছে তিনি গরীবের ডাক্তার হিসেবে পরিচিত।

ডাঃ মোঃ ফারুক হোসেন মুন্সী বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) ও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের আজীবন সদস্য। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) আহবায়ক কমিটির সদস্য।