বৃহস্পতিবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং, ১৩ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং
শরীয়তপুরের নড়িয়ার চামটা ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী

ইউনিয়নবাসীর মধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছেন সুজন মৃধা

ইউনিয়নবাসীর মধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছেন সুজন মৃধা

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার চামটা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ইসমাইল হোসাইন মৃধারর সুযোগ্য বড় সন্তান মোহাম্মদ ইউসুফ হোসাইন (সুজন মৃধা)। আসন্ন চামটা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনি একজন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী।

নির্বাচনকে সামনে রেখে তিনি চামটা ইউনিয়ন বাসীর দুয়ারে দুয়ারে ছুটে চলেছেন। মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে নিজের সালাম পৌঁছে দিচ্ছেন এবং মানুষের আশীর্বাদ ও দোয়া কামনা করছেন। ইতিমধ্যে তিনি চামটা ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে তুলেছেন। তিনি মানুষের ভোটে জয়ী হতে পারলে নিজের ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করছেন। নিজের ইউনিয়নকে স্বপ্নের মতো করে সাজাতে তিনি এবার চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছেন। রাস্তাঘাট, ব্রিজ, কালভার্টসহ নানা অবকাঠামোগত উন্নয়ন করতে চান তিনি। পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে বদলে দিতে তিনি প্রার্থী হয়েছেন।

মুরব্বীদের পরামর্শ এবং তারুণ্যের শক্তি নিয়ে চামটা ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়তে চান তিনি। এজন্য তিনি সবার কাছে দোয়া আশীর্বাদ ও ভোট প্রার্থনা করছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ১৯৭৬ সালের ২২ নভেম্বর জন্ম নেওয়া সুজন মৃধা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হিসাব বিজ্ঞান বিভাগে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রীধারী।

ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। উচ্চ শিক্ষিত ও মার্জিত এই তরুণ প্রার্থী কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক সদস্য এবং যুবলীগের সর্বশেষ সংগ্রেসে খাদ্য কমিটির একজন সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

সমাজসেবী ও রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান হিসেবে সুজন মৃধা পারিবারিকভাবে সব সময়ে মানুষের পাশে ছিলেন।

অসহায় মানুষের চিকিৎসা ও শিক্ষার ব্যবস্থাসহ নানা প্রয়োজনে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। চামটা ইউনিয়নে আসন্ন নির্বাচন সামনে রেখে এরই মধ্যে জনগণের মধ্যে এক গণজাগরণ সৃষ্টি করেছেন সুজন মৃধা।

মানুষের ভোটে জয়ী হতে পারলে নিজের ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।

জনপ্রিয় এই প্রার্থী বলেন, আমারা পরিবারিক ভাবে সব সময়ে মানুষের পাশে থেকে সাহায্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছি। নিজের ইউনিয়নকে স্বপ্নের মতো করে সাজাতে আমি এবার চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছি। আমি রাস্তাঘাট, ব্রিজ, কালভার্টসহ নানা অবকাঠামোগত উন্নয়ন করতে চাই। পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে বদলে দিতে চাই।

মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটাতে চাই। মুরব্বীদের পরামর্শ এবং তারুণ্যের শক্তি নিয়ে চামটা ইউনিয়নকে আধুনিক ডিজিটাল মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়তে চাই। এজন্য আমি সবার কাছে দোয়া, আশীর্বাদ ও ভোট প্রার্থনা করছি।