বৃহস্পতিবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং, ১৩ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

ভোজেশ্বর ইউনিয়নকে উন্নয়নের পাশাপাশি মাদক, সন্ত্রাসমুক্ত করতে চাই : শহিদুল ইসলাম সিকদার

ভোজেশ্বর ইউনিয়নকে উন্নয়নের পাশাপাশি মাদক, সন্ত্রাসমুক্ত করতে চাই : শহিদুল ইসলাম সিকদার
গত ৫ জানুয়ারি শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এরমধ্যে ভোজেশ্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে আনারস প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন শহিদুল ইসলাম সিকদার। শহীদুল (৪৩) ভোজেশ্বর ইউনিয়নের পাঁচক গ্রামের সাবেক চেয়ারম্যান আলী আহাম্মেদ সিকদারের জেষ্ট পূত্র।
তিনি নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক। একান্ত সাক্ষাৎকারে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম সিকদার বলেন, ৫ জানুয়ারি শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলায় ভোজেশ্বর ইউনিয়নের জনগন আমাকে সবচেয়ে বেশি ভোট দিয়ে আনারস মার্কাকে বিজয়ী করেছেন। জনগন আমাকে যেভাবে বেশি ভোট দিয়ে বিজয়ী করেছেন।
তেমনিভাবে আগামী ৫ বছর আমি ইউনিয়নের জনগনকে সর্বোচ্চ সেবা দিতে চেষ্টা করবো। নড়িয়া-সখিপুরের মাটি ও মানুষের প্রিয় নেতা, আমার রাজনৈতিক অবিভাবক পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এবং শরীয়তপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য জননেতা একেএম এনামুল হক শামীম। তিনি নড়িয়া-সখিপুর তথা জেলার উন্নয়নের জন্য কাজ করছেন। তাঁর হাত ধরে ভোজেশ্বর ইউনিয়নকে উন্নয়নের পাশাপাশি মাদক, সন্ত্রাসমুক্ত করতে চাই। ইউনিয়নের কাঁচা রাস্তাগুলো পাকা সড়ক কারার পাশাপাশি ও সাঁকোগুলো সরিয়ে কিছু ব্রিজ করতে চেষ্টা করবো।
চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম সিকদার বলেন, আমরা সাত ভাই এক বোন। আমি সবার বড়। আমার বাবা আলী আহাম্মেদ সিকদার ভোজেশ্বর ইউনিয়নে চারবার মেম্বার ছিলেন এবং তিনবার ইউপি চেয়ারম্যান ছিলেন। আমার বাবা ৩০ বছর যাবত ভোজেশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। আমি বাবাকে দেখেছি, তিনি সবসময় জনগনের পাশে ছিলেন ও ইউনিয়নের উন্নয়নের কাজ করেছেন। অসহায়দের সহযোগিতা করে গেছেন, এখনও করেন। আমিও জনগনের পাশে থেকে ইউনিয়নবাসীর জন্য কাজ করে যেতে চাই।