মঙ্গলবার, ৫ই জুলাই, ২০২২ ইং, ২১শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৫ই জিলহজ্জ, ১৪৪৩ হিজরী
মঙ্গলবার, ৫ই জুলাই, ২০২২ ইং

মজিদ জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজে নবীন বরণ ও কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা

মজিদ জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজে নবীন বরণ ও কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা

অন্যতম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ‘মজিদ জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজ’ ঢাকা বিভাগের শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হওয়ায় উচ্ছ্বসিত হয়ে “শিক্ষা-নৈতিকতা-মানবতা-দেশপ্রেম”-এ শ্লোগাণ এবং “আকাশ ছোঁয়ার গল্প, স্বপ্ন এখানে সত্য” প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে একাদশ শ্রেণির নবীন বরণ ও কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা-২০২২ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন অত্র প্রতিষ্ঠানটি।

শনিবার ১১ জুন মজিদ জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজ মাঠ প্রাঙ্গণে একাদশ শ্রেণির ৫৮১ শিক্ষার্থীকে নবীন বরণ ও কৃতি শিক্ষার্থীদের এ সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

মজিদ জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও বাংলাদেশ পুলিশের সাবেক আইজিপি একেএম শহীদুল হক পিপিএম, বিপিএম-এর সভাপতিত্বে এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক আবু তালেব মো: মোয়াজ্জেম হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মজিদ জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজ ট্রাষ্টিবোর্ডের সদস্য ও বেগম শামসুন্নাহার রহমান, নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাশেদুজ্জামান, নড়িয়া থানা অফিসার ইনচার্জ মাহবুব হোসেন, ভোজেশ্বর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল হক বেপারী। এছাড়া অনুষ্ঠানে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তা, মজিদ জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজ-এর শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অবিভাবকবৃন্দ প্রমূখ ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবু তালেব মো: মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, আমরা যারা নবীন শিক্ষার্থী আছি, আমরা যারা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসি নিজেদের শিক্ষার মাধ্যমে দক্ষতা উন্নয়নের জন্য আর যারা শিক্ষক হিসেবে আমাদের পাঠদান করান, তারা আমাদের দক্ষতা উন্নয়নে সহযোগিতা করে থাকেন। আমরা আজ যারা নবীন, দক্ষতা উন্নয়নের মাধ্যমে এক সময় এরাই হবো প্রবীণ। তিনি বলেন, শিক্ষার উন্নয়নের মাধ্যমে আমরা প্রত্েযকে দক্ষতা উন্নয়নের বিকাশ ঘটাবো এবং দেশ ও জাতিকে উন্নয়নের শিখরে আহরন করবো।

সভাপতির বক্তব্যে একেএম শহীদুল হক বলেন, আমার প্রতিষ্ঠানে যারা পাঠদান করবে, তাদের একটি বিষয়ে সম্যক জ্ঞান থাকতে হবে, তা হলো- “শিক্ষা-নৈতিকতা-মানবতা-দেশপ্রেম”। এগুলোর উন্নয়ন হলেই একজন শিক্ষার্থী মানুষের মতো মানুষ হবে। এরপর তিনি নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞান বিভাগের সকল শিক্ষার্থী যেন জিপিএ-৫ প্রাপ্ত হয়, সেভাবেই প্রস্তুতি নিতে বলেন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের।

অনুষ্ঠানের পূর্বে অতিথিগণ দূর-দূরান্তরে অবস্থানকৃত নবীন শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে দুটি বাসের উদ্বোধন করা হয়।


error: Content is protected !!