শনিবার, ২০শে আগস্ট, ২০২২ ইং, ৫ই ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২২শে মুহাররম, ১৪৪৪ হিজরী
শনিবার, ২০শে আগস্ট, ২০২২ ইং

ছাত্রদলের কাউন্সিলে সাধারন সম্পাদক পদে এগিয়ে শরীয়তপুরের ছেলে সাখাওয়াত

ছাত্রদলের কাউন্সিলে সাধারন সম্পাদক পদে এগিয়ে শরীয়তপুরের ছেলে সাখাওয়াত

আগামী ১৫ জুলাই জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কাউন্সিল। কাউন্সিলকে ঘিরে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে কেন্দ্রীয় কার্যালয় নয়াপল্টনে। এবারের কাউন্সিলে তৃণমূল ও সাধারন কর্মীদের দাবী জাতীয়তাবাদী পরিবারের ও সরকার বিরোধী আন্দোলনে ভূমিকা রাখা যোগ্য প্রার্থীরা যেন ছাত্রদলের কান্ডারী নির্বাচিত হন। এ দিক দিয়ে এগিয়ে আছেন শরীয়তপুরের ছেলে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের যুগ্ন সম্পাদক কে. এম. সাখাওয়াত হোসাইন।
শরীয়তপুর জেলার পালং থানার শান্তিনগর আবাসিক এলাকার ঐতিহ্যবাহী খান পরিবারে জন্মগ্রহন করেন সাখওয়াত। কলেজ জীবন থেকেই তিনি ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে জড়িত। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হবার পর রাজনীতিতে আরো শক্তভাবে নিজেকে জড়ান তিনি। ১/১১ এর সময় তার নেতৃত্বেই জরুরি অবস্থা ভেঙ্গে মিছিল মিটিং করে জবি ছাত্রদল। ২০০৯ সালে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসলে সকল ক্যাম্পাস থেকে ছাত্রদল বিতাড়িত হলেও জবি ছাত্রদল সাখাওয়াতের নেতৃত্বেই ক্যাম্পাসে শক্ত অবস্থান ধরে রাখে। দলীয় যে কোন কর্মসূচিতে জবি ছাত্রদল তার নেতৃত্বেই ক্যাম্পাসের ভিতরে দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। ২০১৭ সালে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর থেকে দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার নাম মুছে দিলে ক্যাম্পাসের ভিতরে তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলেন সাখাওয়াত হোসাইন। ফলে প্রসাশন আবার নামটি পুনঃস্থাপন করেন।
৫ জানুয়ারী নির্বাচনের আগে ও পরে তিনি সরকার বিরোধী আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলেন। আন্দোলনের সময় তিনি গুলিবিদ্ধ হন ও দীর্ঘ দিন অসুস্থ ছিলেন। রাজধানীর বিভিন্ন থানায় তার নামে একাধিক রাজনৈতিক মামলাও রয়েছে।
কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাবেক এক সভাপতি বলেন, সাখাওয়াত হোসাইনের মত তরুণদের হাতে যদি নেতৃত্ব উঠে তবে ছাত্রদল আরো শক্তিশালী হবে।
শরীয়তপুর জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন বলেন, সাখাওয়াত খানের মত সাহসী নেতার হাতে নেতৃত্ব উঠলে দেশনেত্রী মুক্তি পাবে। আন্দোলন আরো দৃঢ় হবে।
শরীয়তপুর সদর উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি রাসেল মোল্লা বলেন, সাখাওয়াত ভাইয়ের মত ত্যাগী ও পরিশ্রমী নেতার হাতে ছাত্রদলের নেতৃত্ব উঠলে সরকার বিরোধী আন্দোলন গতিশীল হবে সেই সাথে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াও মুক্তি পাবেন।
প্রতিটি তৃণমূল কর্মীদের দাবী সাখাওয়াত হোসাইনের মত ত্যাগী ও সাহসী নেতাই যেন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।


error: Content is protected !!