সোমবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা সফর, ১৪৪২ হিজরী
সোমবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

শরীয়তপুরে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ৪’শ ইমাম ও মোয়াজ্জিনদের মাঝে ঈদসামগ্রী বিতরণ করলেন পুলিশ সুপার

শরীয়তপুরে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ৪’শ ইমাম ও মোয়াজ্জিনদের মাঝে ঈদসামগ্রী বিতরণ করলেন পুলিশ সুপার
শরীয়তপুরে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ৪’শ ইমাম ও মোয়াজ্জিনদের মাঝে ঈদসামগ্রী বিতরণ করলেন পুলিশ সুপার

শরীয়তপুরে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ৪’শ ইমাম ও মোয়াজ্জিনদের মাঝে ঈদসামগ্রী বিতরণ করলেন পুলিশ সুপার এস. এম. আশরাফুজ্জামান। টেকসই উন্নয়নের অন্যতম পূর্বশর্ত হলো কাউকে পেছনে ফেলে রাখা যাবে না। সেই অভিষ্ট লক্ষ্য অর্জনের জন্য বাংলাদেশ পুলিশ নিজস্ব উদ্যোগে দেশের প্রান্তিক পর্যায়ের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর পাশে দাঁড়ানোর নিরন্তর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় করোনা ভাইরাসের বিস্তারের কারণে চলমান সাধারণ ছুটিতে কর্মহীন হয়ে পড়া বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও মোয়াজ্জিনদের তালিকা করে ঈদসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

২১ মে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টার দিকে পালং মডেল থানা চত্বরে শরীয়তপুর জেলা পুলিশের উদ্যোগে শরীয়তপুর জেলার বিভিন্ন মসজিদের ৪’শ জন ইমাম ও মোয়াজ্জিনদের মাঝে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে ঈদসামগ্রী বিতরণ করলেন শরীয়তপুর পুলিশ সুপার এস. এম. আশরাফুজ্জামান। এ বিতরণের অংশ হিসেবে শরীয়তপুরে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ১৪ জনকেও এই ঈদসামগ্রী পৌছে দেওয়া হয়।

এ সময় পুলিশ সুপার বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ নিজস্ব উদ্যোগে দেশের প্রান্তিক পর্যায়ের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর পাশে দাঁড়ানোর নিরন্তর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় কর্মহীন অসহায় মানুষদের তালিকা করে আমরা জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছি, আজ শরীয়তপুর জেলার বিভিন্ন মসজিদের ৪’শ জন ইমাম ও মোয়াজ্জিনদের তালিকা করে তাঁদের মাঝে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে ঈদসামগ্রী বিতরণ করলাম। এর মধ্যে শরীয়তপুরে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ১৪ জনকেও এই ঈদসামগ্রী পৌছে দেওয়া হয়। যাতে করে সকলেই ভালোভাবে নিজ বাড়িতে ঈদ উদযাপন করতে পারে। এ ঈদসামগ্রীর মধ্যে রয়েছে ৫ কেজি সাদা চাল, ২ কেজি পোলার চাল, ১ লিঃ তৈল, ২ প্যাকেট লাচ্ছা সেমাই, ১ কেজি চিনি ও ৪০০ গ্রাম গুড়া দুধ। এছাড়াও করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধ চিকিৎসাসহ বিভিন্ন অপরাধের বিষয়ে তাঁদেরকে সচেতন করাসহ শরীয়তপুর জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে কর্মহীন অসহায় দরিদ্র মানুষের প্রতি এ ধরনের সহায়তা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানান পুলিশ সুপার।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) তানভীর হায়দার শাওন, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (ভেদরগঞ্জ সার্কেল) আমিনুর ইসলাম, পালং মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ আসলাম উদ্দিন, পালং মডেল থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ আশরাফুল ইসলামসহ জেলা পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ ও অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ।