বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, ৮ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৬ই সফর, ১৪৪২ হিজরী
বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

স্কুলছাত্র সাব্বির ঈদের সেমাই খেয়ে নানাবাড়ি যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত

স্কুলছাত্র সাব্বির ঈদের সেমাই খেয়ে নানাবাড়ি যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত

সেমাই খেয়ে প্রিয় বাইসাইকেল চালিয়ে নানা বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিল স্কুলছাত্র সাব্বির (১৪)। পথিমধ্যে দ্রুতগতির মটরবাইক কেড়ে নেয় সাব্বিরের প্রান।

তাই ঈদের দিন নানাবাড়ি যাওয়া হয়নি সাব্বিরের। লাশ হয়ে নিজ বাড়িতে মায়ের কাছে ফিরতে হয়েছে তাকে।
শনিবার (১ আগষ্ট) বেলা ১১টার দিকে শরীয়তপুর সদর উপজেলার সুবচনী বাজার সংলগ্ন বালার বাজার-নাগেরপাড়া সড়কে মটরবাইক চাপায় মারা যায় সাব্বির। সাব্বির সদর উপজেলার পূর্ব সোনামুখি গ্রামের অটোরিক্সা চালক আফজাল মৃধার ছেলে ও সুবচনী উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেনীর ছাত্র।

নিহত সাব্বিরের চাচা মোহাম্মদ আলী মৃধা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সাব্বির ঈদের নামাজ পড়ে মায়ের হাতে সেমাই খেয়ে বাইসাইকেল চালিয়ে পাশ্ববর্তী পশ্চিম সোনামুখি গ্রামের নানা বাড়ি যাচ্ছিল। সুবচনী বাজারের কাছাকাছি পৌঁছলে দ্রুতগতির একটি মটরবাইক সাব্বিরকে পেছন থেকে চাপা দেয়।

এতে সাব্বির, মটরবাইক চালক রাজা বেপারী (১৬) ও মটরবাইক আরোহী মাহিম (১৫) গুরুতর আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক সাব্বিরকে মৃত ঘোষণা করেন এবং রাজা ও মাহিমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করেন। রাজা পশ্চিম সোনামুখি গ্রামের সাঈদ বেপারীর ছেলে ও মাহিম ডামুড্যা উপজেলার মডেরহাট পূর্বকান্দি গ্রামের রিপন খালিফার ছেলে।

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ঘটনায় এখনও কেউ মামলা দায়ের করেনি। মামলা হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।