শুক্রবার, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ ইং, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১১ই রবিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী
শুক্রবার, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

শরীয়তপুরে এক অসহায় পরিবারের জমি দখলের পায়তারা

শরীয়তপুরে এক অসহায় পরিবারের জমি দখলের পায়তারা

শরীয়তপুর সদর উপজেলার দাত্রা গ্রামে প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে এক অসহায় পরিবারের জমি জোরপূর্বক জবদ দখলের অপচেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে একের পর এক হামলা ও মিথ্যা মামলা দিয়ে দীর্ঘদিন যাবত হয়রানী করে আসছে অসহায় পরিবারটিকে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার পালং ইউনিয়নের দাত্রা গ্রামের মৃত আ: কাদের বেপারীর বিধবা স্ত্রী আয়শা বেগম, ছেলে হারুন মুন্সী ও মেয়ে মঞ্জু বেগমকে তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি থেকে উৎখাতের জন্য একই এলাকার প্রভাবশালী মৃত হাফিজউদ্দিন বেপারীর ছেলে বাদল বেপারী (৫২), রিপন বেপারী (৩৭), বাদল বেপারীর স্ত্রী শিলা বেগম (৩৬), রিপন বেপারীর স্ত্রী হ্যাপি বেগম (৩০) ও স্বপন বেপারীর স্ত্রী চাল্লি বেগমসহ তাদের পরিবার দীর্ঘ ১৫ বছর যাবত ষড়যন্ত্র করে আসছে। তারা অসহায় পরিবারটিকে একাধিকবার বাড়িঘরে হামলা, ভাংচুর ও মারধর করে গুরুতর আহত করে। এতেও উৎখাত করতে না পেরে মাদক মামলা সহ একের পর এক ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করতে থাকে অসহায় পরিবারটিকে। এ ব্যাপারে অসহায় পরিবারটি কোথায় গিয়ে এর কোন বিচার পাচ্ছে না। প্রভাবশালী বাদল গং দের হাত থেকে রক্ষা পেতে মৃত কাদের মুন্সীর পরিবার থানা পুলিশ, কোর্ট কাচারী সহ মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে।

এ বিষয়ে কাদির মেয়ে মঞ্জু বেগম অভিযোগ করে বলেন, আমরা পৈত্রিকসূত্রে পালং থানাধীন দাত্রা ৪৬নং মৌজার আরএস ও এসএ ১৩নং খতিয়ান ২২৪ দাগ, বিআরএস ৬৩ ও ১০৬নং খতিয়ানের ১২২, ১২৩ ও ১০৩, ১০৪, ১১৮, ১২৫, ১২৬নং দাগের ৩১ শতাংশ বাড়ি ও পুকুর এবং নাল ভূমিতে কিছু জমি ভোগ করে আসছি। কিন্তু আমার বাবার মৃত্যুর পরে আমি এবং আমার ছোট ভাই হারুন বেপারীসহ আমার মা’কে উক্ত জমি থেকে মৃত হাফিজউদ্দিন বেপারীর ছেলে বাদল বেপারী গং ভূয়া ও জাল ডিক্রি করে জোরপূর্বক বাড়ি থেকে ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে একাধিকবার আক্রমণ করে এবং ইয়াবা, গাজা দিয়ে পুলিশে ধরিয়ে দেওয়াসহ মৃত্যুর হুমকি দিয়ে আসছে। বিভিন্ন মামলা-হামলা করে হয়রানি করে আসছে। আমি ও আমার পরিবার গরীব ও অসহায় দিনমজুর একটি পরিবার। আর ওদের কোটি কোটি টাকা ও প্রভাব প্রতিপত্তি ক্ষমতা। ওদের কাছে পেরে ওঠা আমাদের পরিবারের জন্য কঠিন ও দুঃসাধ্য। এ পর্যন্ত আমি ও ভাইকে মেরে ফেলার জন্য তারা একাধিকবার হামলা করেছে। আমি পালং মডেল থানায় এ বিষয়ে একাধিকবার অভিযোগও করেছি। কিন্তু এ পর্যন্ত কোন ধরনের বিচারই আমি পাইনি। যার কাছেই যাই, সবাই ওদের টাকার কাছে বিক্রি হয়ে যায়। আমি ও আমার পরিবার কোথায় গেলে সঠিক বিচার পাব? মঞ্জু বেগম বলেন, আমি একজন অসহায় মহিলা আর দেশের প্রধানমন্ত্রী একজন মহিলা। তিনি যদি দায়িত্ব নিয়ে আমার কাগজপত্র যাচাইবাছাই করে এর সঠিক শুরাহ করে দিতেন, তাহলেও নিজের আত্মাকে শান্তি দিতে পারতাম!

এ বিষয়ে বাদল বেপারী বলেন, তারা যে অভিযোগ করেছে তা ভিত্তিহীন। আমরা কারো জমি দখল করতে যাইনি। এ বিষয়ে আদালতে মামলা চলছে। আদালত যে রায় দেবে আমরা তা মেনে নেব।