রবিবার, ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ ইং, ৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা জমাদিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী
রবিবার, ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ ইং

জাজিরা থানায় চাঁদা দাবির অভিযোগ করায় সিএনজি চাপা দিয়ে হত্যার চেষ্টা

জাজিরা থানায় চাঁদা দাবির অভিযোগ করায় সিএনজি চাপা দিয়ে হত্যার চেষ্টা

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার ঔষধ ব্যবসায়ী নূরুল আমিনের কাছে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা চাঁদা দাবি করায় তিনি জাজিরা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসীরা নূরুল আমিনকে সিএনজি চাপা দিয়ে হত্যার চেষ্টা চালানোর অভিযোগ উঠেছে।

জাজিরা থানায় অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জাজিরা উপজেলার মূলনা ইউনিয়নের নগর বোয়ালিয়া গ্রামের আতিকুর রহমানের ছেলে নূরুল আমিন জয়নগর ইউনিয়নের উত্তর কেবল নগর ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের সামনে একটি ইউনানি ঔষধের ফার্মেসীর দোকান দিয়ে গত চার মাস ধরে ব্যবসা করে আসছে।

গত ৩০ ডিসেম্বর রাতে ব্যবসায়ী নূরুল আমিনের কাছে স্থানীয় জাহাঙ্গীর কাজী তার সন্ত্রাসী দলবল নিয়ে ফার্মেসীতে এসে চাঁদা দাবি করে, আমিন চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় জাহাঙ্গীর কাজী তার ছেলে ও নুরুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজনের সন্ত্রাসী গ্রুপ তাকে হাত পা ভেঙে ফেলার হুমকি দেয়। পরদিন ৩১ ডিসেম্বর নূরুল আমিন জাজিরা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন, এরপর থেকেই তাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয় জাহাঙ্গীর কাজী ও তার দলবল।

এরই সূত্র ধরে গত ৪ জানুয়ারী রাতে নূরুল আমীন তার অটো ভ্যান নিয়ে ঔষধ নেওয়ার উদ্দেশ্যে শরীয়তপুর সদরে আসার পথে ডোমসার বাজারের কাছে পৌঁছালে পেছন থেকে জাহাঙ্গীর কাজীর লোকজন একটি সিএনজি দিয়ে তার অটোভ্যানকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে দ্রুত গতিতে পালিয়ে যায়। এতে নূরুল আমিন গুরুতর আহত হন। এ সময় স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা প্রেরণ করেন। ঢাকা থেকে চিকিৎসা নিয়ে নূরুল আমিন এখন শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

এ বিষয়ে জানতে জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে মুঠোফোনে কল করলে তাকে পাওয়া যায়নি।