সোমবার, ১৪ই জুন, ২০২১ ইং, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা জিলক্বদ, ১৪৪২ হিজরী
সোমবার, ১৪ই জুন, ২০২১ ইং

ভেদরগঞ্জ পৌরসভায় ভেকু দিয়ে ফসলি জমি কাটছে প্রভাবশালীরা!

ভেদরগঞ্জ পৌরসভায় ভেকু দিয়ে ফসলি জমি কাটছে প্রভাবশালীরা!

শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলায় অনুমোদন ছাড়াই মাছ চাষের জন্য ভেকু দিয়ে রাতারাতি ফসলি জমিতে ইচ্ছে মতো পুকুর খনন করছে প্রভাবশালী মহল। এতে ক্রমেই কমছে চাষের জমি।

জানা গেছে, ভেদরগঞ্জ পৌরসভার কিছু ফসলি জমি রয়েছে। শ্রেণিভেদে প্রায় সব জমিতেই সারা বছর কোনো না কোনো ফসলের আবাদ হয়।

রবিবার (৩০ মে) রাত ১০ টার দিকে সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, ভেদরগঞ্জ পৌরসভায় ৪নং ওয়ার্ড(পুটিয়া মৌজার) পুটিয়া গ্রামে প্রতি রাতে প্রশাসন কে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ১ টি ভেকু মেশিন দিয়ে কৃষি জমি খনন করে পুকুর করা হচ্ছে। পাশাপাশি দেশের আবাদি ফসল ও ক্রমাগত কমে আসছে।

সোমবার (৩১ মে) এ বিষয়ে ভেকু মালিক হাবিব হোসেনের সাথে মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি জানান, ফসলি জমিতে ভেকু চালানোর কোন অনুমতিপত্র নেই। সকল সেক্টর ম্যানেজমেন্ট করেই কাজ করি। আপনি স্বপন সিকদারের সাথে যোগাযোগ করুন।

সোমবার রাত ৮ টায় মুঠোফোনে আলাপকালে স্বপন সিকদার বলেন, গতকাল রাতে ভেকু চালাতে পারছি। আজকে বৃষ্টি হওয়ার কারনে ভেকু বন্ধ।

উপজেলা কৃষি অফিসার সালমা আক্তার বলেন, প্রতিবছরই বাড়ছে পুকুরের পরিধি, কমে যাচ্ছে ঊর্বর আবাদি জমি। একই সঙ্গে অপরিকল্পিতভাবে পুকুর খনন এবং সরকারি জলাশয় দখল ও ভরাট করায় বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হতে পারে। তাই এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

জানতে চাইলে ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর আল নাসীফ বলেন, এ বিষয়ে শুনেছি। একবার অভিযান চালিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আবার যদি রাতে গোপনে ভেকু চালায় তাহলে অবশ্যই অভিযান চালানো হবে এবং আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।