শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ই সফর, ১৪৪৩ হিজরী
শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

শরীয়তপুর বিসিক শিল্প নগরীর ১১টি ফ্যাক্টরীকে জরিমানা

শরীয়তপুর বিসিক শিল্প নগরীর ১১টি ফ্যাক্টরীকে জরিমানা

বিপুল পরিমাণ ভেজাল, ক্ষতিকর রাসয়নিক মিশ্রন এবং অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার উৎপাদন করার অপরাধে শরীয়তপুর বিসিক শিল্প নগরীর ১১টি ফ্যাক্টরীকে ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। মঙ্গলবার ৭ সেপ্টেম্বর র‌্যাব-৮, সিপিসি-৩, মাদারীপুর ক্যাম্প কর্তৃক মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে এ জরিমানা করা হয়।

র‌্যাব-৮ সুত্র জানায়, এলিট ফোর্স র‌্যাব তার সৃষ্টির সূচনালগ্ন থেকেই সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, চোরাচালান, মাদক ও অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আপোষহীন অবস্থানে থেকে দেশ ও জনগণের জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়া র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন কর্তৃক ”বিশেষ মোবাইল কোর্ট সপ্তাহ-২০২১” পালন উপলক্ষ্যে ’ভোক্তা অধিকার ও সংরক্ষণ আইন ২০০৯’ বাস্তবায়ণে লক্ষ্যে র‌্যাব-৮, মাদারীপুর গোয়েন্দা নজরদারীর মাধ্যমে শরীয়তপুর জেলার পালং থানাধীন আংগারিয়া বাজার, প্রেমতলা বাজার এবং বিসিক শিল্প নগরীর বিভিন্ন ফ্যাক্টরীতে ভেজাল, ক্ষতিকর রাসয়নিক মিশ্রন এবং অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার উৎপাদন সম্পর্কে তথ্য পায় এবং তাদের ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করতে তৎপরতা শুরু করে।

র‌্যাব-৮, সিপিসি-৩, মাদারীপুর ক্যাম্পের আভিযানিক দল মঙ্গলবার শরীয়তপুর জেলার আংগারিয়া বাজার, প্রেমতলা বাজার এবং বিসিকি শিল্প নগরীর বিভিন্ন ফ্যাক্টরীতে সকাল ৯ হতে দুপুর ২টা পর্যন্ত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের আভিযানিক দল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জমির উদ্দীন আহমেদ বিসিক শিল্পনগরীতে উপস্থিত হয়ে সর্বমোট ১১টি ফ্যাক্টরীতে অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানকালে ফ্যাক্টরীর মালিক মহাদেব ঘোষ, রনজিৎ ঘোষ, মোঃ জসিম, নজরুল ইসলাম, রায়হান, মহিউদ্দীন, মোঃ জহিরুল ইসলাম, মো, জাহাঙ্গীর, জাহাঙ্গীর হোসেন, পালং, আলী আকবর, ও মোঃ সুমন, আটক করেন।

এ সময় ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে শরীয়তপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট খান সালমান হাবীব উক্ত কারখানার ম্যানেজারদেরকে ভেজাল, ক্ষতিকর রাসয়নিক দ্রব্য মিশ্রন এবং অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার উৎপাদন করায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন আইন ২০০৯ এর ৪৩/৫১ ধারা এবং অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯৫৬ এর ৬(১) মোতাবেক সর্বমোট ৫৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন। পরবর্তীতে উদ্ধারকৃত ভেজাল ও ক্ষতিকারক খাদ্য সামগ্রী ধ্বংস করা হয়। র‌্যাব-৮ এর এধরনের কার্যক্রম ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে বলে তারা জানান।