রবিবার, ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ ইং, ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরী
রবিবার, ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ ইং

ইউপি নির্বাচনে অংশ নিতে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নাসিম আহমেদ

ইউপি নির্বাচনে অংশ নিতে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নাসিম আহমেদ

আসন্ন ইউনিয়ন নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে প্রচার-প্রচারণা। বিশেষ করে আলোচনা ক্ষমতাসীন দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে কে হচ্ছেন দলীয় প্রার্থী, কে বা পাচ্ছেন টিকিট। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে সর্বত্র চলছে নানান জল্পনা কল্পনা। সেই সাথে চলছে রাজনৈতিক মহলে নানান হিসাব নিকাশ, প্রার্থীরা কষছেন নানা হিসাব। এ নিয়ে নবীন সম্ভাব্য প্রার্থীরা শুরু করেছে নিজেদের প্রচার প্রচারণা। এ সকল সম্ভাব্য প্রার্থীদের সমর্থকেরা ফেসবুক সহ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রতিনিয়ত, অনেকেই আবার শুরু করেছেন গণসংযোগ।

এছাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন হাট, বাজার ও গুরুত্বপূর্ণ স্থান ব্যানার ও ফেস্টুন দিয়ে ছেয়ে গেছে। অনেকে আবার পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে পরিচিতি বৃদ্ধিতে রয়েছেন সামিল। ডি এম খালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে আলোচনায় বিভিন্ন জনের নাম আসলেও ব্যাপক আলোচনায় আছেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক, প্রয়াত চেয়ারম্যান মাষ্টার জসিম উদ্দিন মাদবরের বড় ছেলে ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদের নাম।

ভোটারদের সমর্থন পেতে ইতিমধ্যেই তিনি ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে প্রতিনিয়ত গণসংযোগ করে চলেছেন। সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়নের প্রত্যাশায় চেয়ারম্যান প্রার্থী ও তার কর্মী,সমর্থকরা একটু আগেভাগেই প্রচার প্রচারণায় নেমে পড়েছেন। চষে বেড়াচ্ছেন নির্বাচনী মাঠ। প্রচার প্রচারণায় ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন তিনি ।

একাধিক ভোটাররা বলেন,এলাকার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তের দলের নেতাকর্মী,ভোটার ও সাধারণ মানুষের সাথে মতবিনিময় করছেন সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী নাসিম আহমেদ । ইউনিয়নের মানুষের সব সময় খোঁজ খবর রাখেন তিনি। এলাকার মানুষের বিপদে পাশে থাকাসহ নানা সামাজিক কর্মকান্ডে,অংশ নিচ্ছেন। প্রতিদিনই ইউনিয়নের কোথাও না কোথাও গণসংযোগ করেন তিনি। সকল শ্রেণী পেশার মানুষ তার আচার,ব্যবহারে মুগ্ধ। ইতিমধ্যেই ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হয়েছে। নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না দিলেও, ডি এম খালী ইউনিয়ন জুড়ে নির্বাচনী আমেজ তৈরি হয়েছে। সেই নির্বাচনী আলোচনায় বেশ এগিয়ে আছেন সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী নাসিম আহমেদ।

কথা হলে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নাসিম আহমেদ বলেন, আমার বাবা মরহুম মাষ্টার জসিম উদ্দিন মাদবর ১৯৯৩ সাল থেকে অবিভক্ত ভেদরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাথে জড়িত ছিলেন। ১৯৯৭ সালে নবগঠিত সখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সমাজকল্যাণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পান। ২০০৩ সালে ডি.এম.খালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব প্রাদান করা হয়। সেই বি.এন.পি-জামায়াত দুঃসময়ে অন্যান্য নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করেন। তার ফলেই ২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে স্বাধীনতার পরে প্রথমবারের মত ডি.এম.খালীতে আওয়ামী লীগ জয়লাভ করে। ২০১১ সালের সম্মেলনেগোপন ভোটের মাধ্যমে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২০১৯ সালে নেতৃবৃন্দ তাকে আবারো সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করেন। ২০১৬ সালে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে নৌকা মার্কায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করে করোনা কালিং সময়ে মাঠে থেকে কাজ করতে গিয়ে তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ১৬ অক্টোবর শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

আরো বলেন, ডি এম খালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পরিবর্তনের হাওয়া বইছে। আমি অনেক দিন যাবত মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে বুকে লালন করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। আমি সবসময় এলাকার মানুষজনের সুখে দুঃখে তাদের পাশে আছি। যদি আমাকে জননেত্রী শেখ হাসিনা নৌকার মনোনয়ন দেন ইনশাআল্লাহ আমি আশাবাদী বিপুল ভোটে বিজয়ী হব।আমি ভোটারদের সাথে প্রাথমিক শুভেচ্ছা বিনিময় করছি। আল্লাহর রহমতে অনেক সাড়া পাচ্ছি। আমি বিজয়ী হলে ডি. এম. খালী ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়নে পরিণত করবো ইনশাআল্লাহ।