বৃহস্পতিবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং, ১৩ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

শপথ নিলেন গোসাইরহাটের নবনির্বাচিত ৭ ইউপি চেয়ারম্যানদের

শপথ নিলেন গোসাইরহাটের নবনির্বাচিত ৭ ইউপি চেয়ারম্যানদের

শরীয়তপুরের গোসাইরহাটে উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানদের শপথ গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (৩ জানুয়ারি) সকাল দশটায় শরীয়তপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানদের শপথবাক্য পাঠ করান জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসান।

শপথ নেয়া ৭ চেয়ারম্যান হলেন, কোদালপুর ইউনিয়নের এস এম মিজানুর রহমান, আলওয়ালপুর ইউনিয়নের ওসমান বেপারী, নলমুড়ি ইউনিয়নের মাহাফুজুর রহমান, কুচাইপট্রি ইউনিয়নের নাসির উদ্দিন স্বপন, সামন্তসার ইউনিয়নের আবদুর রব সরদার, নাগের পাড়া ইউনিয়নে মোজাম্মেল হক ও গোসাইরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান রিপন সরদার।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক।

বিশেষ অতিথি ছিলেন শরীয়তপুর জেলা স্থানীয় সরকার বিভাগে উপপরিচালক আবিদা আফসারি, জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে,গোসাইরহাট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ ফজলুর রহমান ঢালী, গোসাইরহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আলমগীর হোসাইন।

অনুষ্ঠানে নাহিম রাজ্জাক এমপি বলেন, তিনটি মানদণ্ড পূরণ করে বাংলাদেশের স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ হয়েছে। এটিকে জাতিসংঘ মিরাকল বলে অভিহিত করেছেন। বঙ্গবন্ধু যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে সংবিধান প্রণয়ন করেছিলেন। তিনি মাত্র সাড়ে তিন বছর সময় পেয়ে দেশে উন্নয়নের ভিত রচনা করেছিলেন। সেই ভিত থেকে দেশকে এগিয়ে নিচ্ছেন তারই উত্তরসূরি শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ২০০৯ সালে দারিদ্র ছিল ৪০ শতাংশ, সেখান থেকে কমে দাঁড়িয়েছে ২১ শতাংশ। শিক্ষার হার বেড়েছে। ২০৪১ সালে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ হবে। আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছি। এটা সম্ভব হয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সততা,আন্তরিকতা আর কর্মদক্ষতার কারনে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী মানবতায় সেরাদের সেরা,দক্ষতায় সেরা, সততায়ও বিশ্ব সেরা। ইউনিয়ন পরিষদ হচ্ছে সরকারের উন্নয়নের প্রান্তিক বা প্রথম স্তর। আর চেয়ারম্যান সাহেবগন হচ্ছেন সরকারে উন্নযনের প্রথম সারির প্রতিনিধি। এর পরে উপজেলা, জেলা পরিষদের পর রয়েছে মন্ত্রী পরিষদ। এক জন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এর সততা, আন্তরিকতা ও দক্ষতার ওপর তার ইউনিয়নের তথা দেশের উন্নয়ন চিত্র ফুটে উঠে। মানবতার মা দেশ রত্ন শেখ হাসিনা ইউনিয়ন পরিষদকে শক্তিশালী করার জন্য যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। তার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী গ্রামে মানুষকে শহরের সেবা দেওয়া শুরু হয়েছে। যা বাস্তবায়নে ইউনিয়ন পরিষদ প্রধান সহায়ক শক্তি।