সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ ইং, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২২শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরী
সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ ইং

শরীয়তপুরে উপমন্ত্রী শামীম ও অপু এমপি’র রোগমুক্তির জন্য মিলাদ ও দোয়া

শরীয়তপুরে উপমন্ত্রী শামীম ও অপু এমপি’র রোগমুক্তির জন্য মিলাদ ও দোয়া

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এমপি এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কার্য্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য ইকবাল হোসেন অপু এমপি সহ ৪জন সংসদ সদস্য করোনা পজিটিভ হয়েছে। তাদের রোগমুক্তি কামনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

সোমবার ১৭-ই জানুয়ারি জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে শরীয়তপুর জেলা, উপজেলা, পৌরসভা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী অঙ্গসংগঠণের উদ্েযাগে এ দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এ দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ছাবেদুর রহমান খোকা সিকদার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও জজকোর্টের পিপি এডভোকেট মির্জা হযরত আলী, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য কামরুজ্জামান উজ্জ্বল, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও জজকোর্টের জিপি আলমগীর হোসেন মুন্সী, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট জহিরুল ইসলাম, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ তালুকদার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ছামিনা ইয়াসমিন, পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এম জাহাঙ্গীর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন খান, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুহুন মাদবর, সদর পৌরসভার প্যানেল মেয়র মো: বাচ্চু বেপারীসহ জেলা, স্বেচ্ছাসেবকলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ভিপি শেখ আব্দুস সালাম প্রমূখ সহ উপজেলা ও পৌরসভা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী অঙ্গসংগঠণের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। দোয়া ও মিলাদ মাহফিল পরিচালনা করেন আলহাজ্ব হাফেজ তাজুল ইসলাম।

এছাড়াও নড়িয়া উপজেলা ও সখিপুর থানার সকল মসজিদ সহ জেলার বিভিন্নস্থানে মিলাদ ও দোয়া করা হয়।
জানাগেছে, করোনাকালিন এই দুই বছর জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দেশকে নদীভাঙন ও বন্যার হাত থেকে রক্ষা করার জন্য দেশের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে বেড়িয়েছেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম এমপি। যাতে তিনি ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছেন। তিনি হাওড় অঞ্চলের কৃষকের মুখে হাঁসি ফোঁটানোর জন্য কাজ করে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছেন।

করোনার শুরুতেই তিনি নড়িয়া-সখিপুরে “ডাক্তারের কাছে রোগী নয়, রোগীর কাছে ডাক্তার” শ্লোগানে ভ্রাম্যমান মেডিকেল টিম চালু করেছিলেন। এছাড়াও এলাকার মানুষের বাড়ি বাড়ি খাবার পৌছে দিয়েছেন। শীতার্তাদের কম্বল দিয়েছেন। নিয়মিত এলাকার মানুষের পাশে ছিলেন। পাশাপাশি ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ডও চালিয়ে গেছেন।

অন্যদিকে, ইকবাল হোসেন অপু এমপি করোনাকালিন সময়ে এলাকার অসহায় মানুষের মুখে খাবার তুলে দিয়েছেন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা কালিন সময়ে মানুষের বাড়ি বাড়ি খাবার পৌছে দিয়েছেন। পাশাপাশি এলাকায় ব্যাপক উন্নয়নও করেছেন। তাদের করোনা পজেটিভ হওয়ার খবরে শরীযতপুরবাসীর হৃদয়ে অশ্রুক্ষরণ হচ্ছে৷ তারা মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে এই দুই নেতার আশু আরোগ্য কামনা করেছেন।