বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ ইং, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ ইং

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস কর্মী সম্মেলন শরীয়তপুরে অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস কর্মী সম্মেলন শরীয়তপুরে অনুষ্ঠিত

“খেলাফত প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গণআন্দোলন গড়ে তুলুন” এ শ্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস শরীয়তপুর শাখার আয়োজনে কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার ২২ সেপ্টেম্বর দুপুরের শরীয়তপুর পৌর অনুষ্ঠিত কর্মী সম্মেলনে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি মাওলানা ছাব্বির আহমেদ ওসমানী।

সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমেদ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মুফতী শরাফত হুসাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা এনামুল হক মুসা ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা মাহবুবুল হক। এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, শরীয়তপুর ওলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা আবু বকর, শরীয়তপুর ওলামা পরিষদের উপদেষ্টা মাওলানা শফিউল্লাহ খান, ইকরা মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা খন্দকার শহীদুল্লাহ, জমিয়তে ওলামায়ে ইসলামের সভাপতি মাওলানা ইদ্রিস কাসেমী, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মঈনুদ্দিন কাসেমী ও ইসলামী আন্দোলন শরীয়তপুর শাখার সভাপতি মুফতী তোফায়েল আহমেদ কাসেমী প্রমূখ। এ সময় বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসসহ অঙ্গ সংগঠণের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সম্মেলনে বক্তারা বলেন, লাগামহীন দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি রোধে বর্তমান সরকারের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। মায়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকারের কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে, অন্যথায় ইসলামী সংগঠণগুলো কঠোর পদক্ষেপের ঘোষনা করেন এবং ওলামায়ে কেরামগণকে আগামী একমাসের মধ্যে কারাগার থেকে মুক্তি না দিলে লাগাতার আন্দোলন কর্মসূচির ঘোষনা প্রদান করা হয়। এরপর বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের সকল কর্মী ও দেশের সর্বোস্তরের ওলামায়ে কেরামের সর্বাত্মক কল্যাণ কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।


error: Content is protected !!