Wednesday 21st February 2024
Wednesday 21st February 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/rudrabarta.net/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

জোড়পূর্বক ভেকুর সাহায্যে প্রবাসীর জমি খনন ও মাটি বিক্রি 

জোড়পূর্বক ভেকুর সাহায্যে প্রবাসীর জমি খনন ও মাটি বিক্রি 

শরীয়তপুর  সদর উপজেলায় দুই মাস যাবৎ জোরপূর্বক প্রবাসী ও অন্যান্য ব্যক্তিবর্গের জমি থেকে ভেকু দ্বারা অপরিকল্পিতভাবে মাটি কেটে পুকুর খনন এবং ইটভাটা ও সরকারি রাস্তা নির্মাণে প্রায় কোটি টাকার মাটি বিক্রয় করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফলে ওসব জমির বড় অংশই এখন ডোবায় পরিণত হয়েছে, যেখানে ফসল ফলানো সম্ভব হবে না। অভিযোগটি ওঠেছে পালং ইউনিয়নের ধামসী পাটানীগাও এলাকার সাবেক মেম্বার রোকন সরদারের বিরুদ্ধে।

 

জমির মালিক প্রবাসী সিরাজ ছৈয়ালের স্ত্রী অমলা বেগম, মন্টু মন্ডল ও কালুচন্দ্র মন্ডলের স্ত্রী মহামায়ার অভিযোগ, তাদের সাথে কোনো রকম যোগাযোগ না করেই ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে জোরপূর্বক মাটি কেটে নিচ্ছেন। মাটির দাম বাবদ কোনো টাকা বা ক্ষতিপূরণও দেওয়া হচ্ছে না। কৃষিজমি হারিয়ে তারা অসহায় হয়ে পড়েছেন। কান্নাজড়িত কণ্ঠে তারা বলেন, আমাদের করার কিছুই নেই। প্রশাসন যদি সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রভাবশালী রোকন সরদারকে মাটি কাটা থেকে বিরত রাখে এবং আমাদের ন্যায্য পাওয়ানা বুঝিয়ে দেয়, তাহলেই আমরা সুষ্ঠু বিচার পাব।

 

স্থানীয় ভাবে জানা যায়, এ বিষয়ে স্থানীয়রা বাধা দিলেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না জমির মালিকগণ। জমি হারিয়ে জমির মালিকরা অনেক কষ্টে আছেন। এ বিষয়ে প্রবাসী সিরাজ ছৈয়ালের স্ত্রী অমলা বেগম একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, অবৈধ ভেকু দ্বারা রোকন সরদার জোরপূর্বক প্রবাসী সিরাজ ছৈয়াল, মন্টু মন্ডল ও কালুচন্দ্র মন্ডলের ফসলী জমি থেকে মাটি কেটে পুকুর খনন এবং ইটভাটা ও সরকারি রাস্তা নির্মাণে মাটি বিক্রয় করেছে। এমতাবস্থায় ভেকু দ্বারা মাটি কাটা ও বিক্রয় বন্ধ না করলে, তারা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হবে।

 

এবিষয়ে রোকন সরদারের ভাই আল-আমিন সরদার বলেন, এ পুকুরের অধিকাংশ জমি আমাদের। এটা বহুদিন পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এখন মাটি কেটে মাছ চাষের উপযোগী করতেছি। কারো জমি জোড়পূর্বক কাটা হচ্ছে না।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র বলেন, আমি সরেজমিনে গিয়েছিলাম। এটা তাদের পারিবারিক সমস্যা। কেউ কারো জমির সীমানা নির্ধারণ করে দিচ্ছে না। রোকন সরদার পুরোনো একটি পুকুর মাছ চাষের উপযোগী করার জন্য ভেকু দ্বারা খনন করছে। তাদের সমস্যা পারিবারিকভাবেই সমাধান করতে হবে।