শনিবার, ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং, ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
শনিবার, ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং

চাচা শশুরের মারধরের শিকার হয়ে প্রবাসী স্ত্রী হাসপাতালে

চাচা শশুরের মারধরের শিকার হয়ে প্রবাসী স্ত্রী হাসপাতালে

চাচা শশুরের মারধরের শিকার হয়ে প্রবাসী স্ত্রী হাসপাতালে। এমনি এক ঘটনা ঘটেছে, শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলার ধানকাটি ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড বাহেরচর মৃত খলিল হাওলাদারের পুত্র মায়লোশীয়া প্রবাসী দেলোয়ার হাওলাদারের স্ত্রী নাসিমা বেগম এর উপর। শুক্রবার ৪ তারিখ রাত ৯টায় তাকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন শাশুরী লুৎফা বেগম সহ তার স্বজনরা।

৫ নভেম্বর সকালে হাসপাতালে গিয়ে জানা যায়, তুচ্ছ বাঁশ কাঁটা নিয়ে কাথা কাটাকাটি। এক পর্যায়ে হাতাহাতি। হাসপাতালের বেডে শুয়ে নির্যাতিত নাসিমা বলেন, ভাগের জায়গার বাঁশ ঝারের বাঁশ। না বলে কেঁটে নিয়ে যায় তারই চাচা শশুর শাহজাহান হাওলাদার। বাঁশগুলো বিক্রি করতে গেলে। প্রবাসীর স্ত্রী নাসিমা বেগম ও তার শাশুড়ী বাঁধা দেয়। এই বাঁধা মানতে না পেরে হঠাৎ করে গাড়ির উপর বাঁশ সাজানো, সেই বাঁশের উপর থেকে লাফ মেরে, আমাকে ইচ্ছা মতো কিল, ঘুষি-লাথি মারতেই থাকে। পরে আমি অচেতন হয়ে গেলে, আমাকে আমার স্বজনরা শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। আমি এর বিচার চাই। ঘটনাস্থলে উপস্থিত মেম্বার আলী আজগার কাজী ছিল।

প্রবাসীর স্বজন জালাল মোড়ল, রুবেল হাওলাদার, হোসনে আরা সবার একই কথা। দুই তারিখ বুধবার বিকালে বাঁশ নিয়ে মারামারি। পুলিশের কাছে অভিযোগ দিলে আজ শনিবার বিকালে সালিশ মিমাংসা করার কথা ছিল কিন্তু এর আগেই আবারও হামলা করে মারাত্বক চাপা মারধর করে। কারও কথার তোয়াক্কা না করে শাহজাহান হাওলাদার নাসিমা বেগমের উপর যে জুলুম ও নির্যাতনের ঘটনা ঘটিয়েছে। এর বিচার হওয়া উচিৎ। এই জন্য আমরা আদালতে মামলার করবো। মালার পক্রিয়া চলছে।


error: Content is protected !!