বৃহস্পতিবার, ৪ঠা জুন, ২০২০ ইং, ২১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ই শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ৪ঠা জুন, ২০২০ ইং

নড়িয়ায় ৫ম ধাপে স্পেন প্রবাসীর নিজস্ব অর্থায়নে প্রায় ১৩’শ কর্মহীন অসহায়দের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরন

নড়িয়ায় ৫ম ধাপে স্পেন প্রবাসীর নিজস্ব অর্থায়নে প্রায় ১৩’শ কর্মহীন অসহায়দের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরন

করোনা সংকটে মানুষ যখন দিশেহারা এবং অসহায় জীবনযাপন করছে, ঠিক তখনই স্পেন প্রবাসী রাসেল হাওলাদারের প্রতিষ্ঠিত আলহাজ্ব শাহজাহান রিনা চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে প্রায় ১৩’শ পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরন করেন স্পেন প্রবাসীর পিতা আলহাজ্ব শাহজাহান হাওলাদার।

আজ মঙ্গলবার ১২ মে সকাল ৮ টার সময় শরীয়াতপুর জেলার নড়িয়া উপজেলার জপসা-ভোজেশ্বর ইউনিয়নের আলহাজ্ব শাহজাহান রিনা চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে তার নিজ বাড়িতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে প্রায় ১৩’শ হতদরিদ্র, প্রতিবন্ধী ও নরসুন্দরদের মাঝে এ খাদ্যসামগ্রী বিতরন করা হয়।

এই ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে এ পর্যন্ত প্রায় ৬-৭ হাজার পরিবারকে খাদ্যসহায়তা দেওয়া হয়েছে। আলহাজ্ব শাহজাহান রিনা চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন শুধু ভোজেশ্বর নয়, আশেপাশের ৪ টি ইউনিয়নে যেমন-জপসা,ফতেজঙ্গেপুর,বিঝারী ইউনিয়নে দরিদ্রদের মাঝে খাদ্যসহায়তা প্রদান করেছে।

খাদ্যসামগ্রী বিতরন কার্যক্রম নিয়ে শাহজাহান হাওলাদার বলেন আলহাজ্ব শাহজাহান রিনা চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা আমার স্পেন প্রবাসী ছেলে হাজী রাসেল হাওলাদার, সে স্পেন বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্সের সভাপতি। আমরা আজকে ১২-১৩’শ লোকের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরন করবো, তবে মনে হয় লোক সংখ্যা আরো বেশী হবে, লোক যতই বেশী হউক কেউ আমার বাড়ি থেকে খালি হাতে যাবেনা। আমরা এ পর্যন্ত ৬-৭’হাজার লোককে খাদ্যসহায়তা দিয়েছি, আমরা আশেপাশের ৪ টি ইউনিয়নে খাদ্যসহায়তা দিয়েছি। প্রয়োজনে আমরা এই সংগঠনের মাধ্যমে সপ্তাহে দু’দিন ২০০-৩০০ লোককে সহায়তা করে আসছি, যতোদিন পর্যন্ত করোনার সংকটকাল থাকবে। এর আগে আমার ছেলে হাজী রাসেল হাওলাদার শরীয়াতপুরের মাননীয় জেলা প্রশাসকের ত্রান তহবিলে ২ লাখ টাকা গরীব অসহায়দের মাঝে বিতরণের প্রদান করেছে।