বৃহস্পতিবার, ৯ই জুলাই, ২০২০ ইং, ২৫শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৮ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ৯ই জুলাই, ২০২০ ইং

নড়িয়ার ডিঙ্গামানিক ইউনিয়ন চেয়ারম্যান করোনা আক্রান্ত, সুস্থতার জন্য দোয়া কামনা

নড়িয়ার ডিঙ্গামানিক ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন খান নিজের জীবন বাজি রেখে ডিঙ্গামানিক ইউনিয়নে এলাকার মানুষের মধ্যে মাস্ক পরিয়ে দিচ্ছেন। ছবি- দৈনিক রুদ্রবার্তা

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ-এর সাবেক প্রচার সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ নড়িয়া উপজেলা শাখার সদস্য, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন-এর আজীবন সদস্য, শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ডিঙ্গামানিক ইউনিয়ন পরিষদের বারবার নির্বাচিত ও স্বর্ণ পদক প্রাপ্ত সফল চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আনোয়ার হোসাইন খান করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ আনোয়ার হোসাইন খান ডিঙ্গামানিক ইউনিয়ন জনগণের নিকট দ্রুত সুস্থতার জন্য দোয়া চেয়েছেন। এবং ডিঙ্গামানিক ইউনিয়ন এলাকার জনগণের উদ্দেশ্যে জানান, আমি বিশ্ব মহামারী করোনা ভাইরাস সংক্রমণ-এর শুরু থেকেই আমার এবং পরিবারের জীবনের চিন্তা না করে আপনাদের পাশে ছিলাম। আমার সাধ্য মোতাবেক ব্যক্তিগত তহবিল, পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম ভাইয়ের ব্যক্তিগত অর্থায়ন ও সরকারি ত্রাণ সহায়তা প্রদান করার পাশাপাশি আমার ইউনিয়নে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত রোগী ও তাদের পরিবারের পাশে ছিলাম। গত ১১ জুন আমি গ্রামে গিয়ে প্রায় ৫ দিন আপনাদের সেবা করেছি। পরবর্তীতে মাননীয় পানিসম্পদ উপমন্ত্রী পরামর্শক্রমে ঢাকাতে চলে আসি। ঢাকায় আসার পর থেকেই আমি শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পরেছি। ডিঙ্গামানিক ইউনিয়ন জনগণ ও সকলের নিকট দ্রুত সুস্থতার জন্য দোয়া কামনা করেন এ চেয়ারম্যান।

শরীয়তপুরে এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত রোগী ৪১৩ জন। মোট মৃত্যু ০৫ জন। ২৪ জুন পর্যন্ত নতুন আক্রান্ত হয়েছেন ৩১ জন। আক্রান্ত হওয়া রোগীরা হলেন, শরীয়তপুর সদর পৌরসভা ১১ ও ডোমসার ইউনিয়ন ০১ জন ; জাজিরার সেনেরচর ০২ জন ; ভেদরগঞ্জ পৌরসভায় ০৫ ও রামভদ্রপুর ০১ জন, ডামুড্যা পৌরসভা ০১ জন, নড়িয়ার ভােজেশ্বর ০৪ ও ডিঙ্গামানিক ০৪ জন, গােসাইরহাটের ইদিলপুর ইউনিয়নে ০২ জনসহ জেলায় মোট ৩১ জন। এদিকে জেলায় এ পর্যন্ত শরীয়তপুর জেলায় মোট ৪ হাজার ৮০৭ টি সন্দেহভাজনের নমুনা সংগৃহীত হয়েছে এবং ৪ হাজার ৪৪৮ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফল এসেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সদর ১২, গোসাইরহাট ১০, নড়িয়া ১১ ও জাজিরা ০৪ জন রোগীকে সুস্থ ঘোষণা করা হয়েছে। প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে রয়েছে ১৬ জন। তার মধ্যে সদর হাসপাতাল ৪ জন, নড়িয়া ৪ জন, গোসাইরহাট ৪ জন, ভেদরগঞ্জ ৩ জন ও ডামুড্যা ১ জন। বিষয় গুলো নিশ্চিত করেছেন শরীয়তপুর জেলা করোনা কন্ট্রোল রুমের মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ও ফোকাল পার্সন ডাঃ আব্দুর রশিদ।