বৃহস্পতিবার, ১১ই আগস্ট, ২০২২ ইং, ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৩ই মুহাররম, ১৪৪৪ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ১১ই আগস্ট, ২০২২ ইং

নড়িয়ার মোক্তারচরে নদী ভাঙ্গন কবলিতদের মাঝে চাল বিতরণ

নড়িয়ার মোক্তারচরে নদী ভাঙ্গন কবলিতদের মাঝে চাল বিতরণ

শরীয়তপুর নড়িয়া উপজেলার মুক্তারেরচর ইউনিয়নে ১৩’শ ৭৫ জন নদী ভাঙনে সর্বহারা পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ চলছে।
সোমবার (০১ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১ টায় মুক্তারেরচর ইউনিয় পরিষদে গিয়ে দেখা যায়, ইউনিয়ন পরিষদ কতৃক দূর্যোগ ব্যাবস্থাপনা অধিদপ্তর এর মাধ্যমে মানবিক সহায়তা কর্ম সূচীর আওতায় ১৩’শ ৭৫ জনকে ৩০ কেজী করে চাল বিতরণ করছে।
সেই চাল পেতে সারিবদ্ধ ভাবে আষাঢ় মাসের রুক্ষ রোদে সিরিয়াল ধরে দাঁড়িয়ে আছে নদী ভাঙনকবলীত অসহায় নারী ও পুরুষ।
নদী ভাঙনে সর্বহারা ছালমা আক্তার জানান, এক সময় আমাদের জায়গা-জমি ব্যবসা বাণিজ্য সব কিছু ছিলো। কোন দিন কারো কাছে কিছুর জন্য যেতে হয়নি। আজ আমরা সর্বহারা। নদীর ভাঙ্গনে সব কিছু বিলীন হয়ে গেছে। কোন দিন ভাবিনি ৩০ কেজী চালের জন্য এভাবে রোদের ভেতর দাঁড়িয়ে থাকতে হবে। মোক্তারেরচর ইউনিয়নে ভাঙ্গনকবলীত এমন হাজারও মানুষ আশ্রয় নিয়েছে এখানে। আগে একসাথে থাকলেও, এখন আস্তে আস্তে বাড়ছে পরিবারের সংখ্যা। সেই তুলনায় বাড়েনি সাহায্য সহোযোগিতা।
এ বিষয়ে চেয়ারম্যান শাহআলম চৌকিদার বলেন, পানি সম্পদ মন্ত্রানালয়ের উপ-মন্ত্রী এনামুল হক শামীম ভাই তিনি সব সময় নদী ভাঙ্গনকবলীত মানুষের খোঁজ খবর রাখেন। তারই সহোযোগিতা আজ ১৩’শ ৭৫ জনকে ৩০ কেজী করে চাল দিচ্ছি। আমার ইউনিয়নে নদী ভাঙ্গন লোকজন ছাড়াও আরো অনেক অসহায় মানুষ রয়েছে। যে সাহায্য আসে তা দিতে গিয়ে হীমশিম খেতে হয়। ১৭’শ লোকের চাল আসলে ভালো হতো। আমি চাহিদা দিয়েছি। আসা করি গরিব বন্ধব সরকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থাকলে কেউ না খেয়ে মরবে না। সবাইকে সব ধরনের সহোযোগিতা করতে পারবো।


error: Content is protected !!