মঙ্গলবার, ২রা জুন, ২০২০ ইং, ১৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
মঙ্গলবার, ২রা জুন, ২০২০ ইং

জয়নগর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের সেকমো’র বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগজয়নগর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের সেকমো’র বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

জয়নগর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের সেকমো’র বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগজয়নগর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের সেকমো’র বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য শিক্ষার মত যে মৌলিক অধিকারগুলো রয়েছে সরকার তা বাস্তবায়নে অঙ্গিকারবদ্ধ। সে অনুযায়ী বিভিন্ন চিকিৎসা কেন্দ্র থাকার পরেও গ্রামীন স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নয়নের জন্য ইউনিয়ন পর্যায়ে তৈরী করা হয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্র। যাতে গ্রামের মানুষকে কষ্ট করে চিকিৎসা নিতে দূরে যেতে না হয়।
এদিকে সরকারের সেই স্বাস্থ্য সেবার পরিকল্পনা ভেস্তে যাচ্ছে, জাজিরা উপজেলার জয়নগর ইউনিয়ন সাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার শাহজাহানের অনিয়মে।
স্থানীয়দের অভিযোগ উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার শাহজাহান মিয়া স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বসে রোগী দেখার ফি নিচ্ছেন ১০০/২০০ টাকা, সরকারী কোনো ঔষধই রোগীরা পাচ্ছেন না। এবং বে-সররকারী ঔষধ তার অফিসে রেখে বিক্রি করছেন রোগীদের কাছে, অন্যদিকে অফিস টাইমে কখনই সঠিক সময়ে পৌঁছাতে পারেন না শাহজাহান মিয়া।
সরকারী ঔষধ জয়নগর বাজারের জাবেদের ফার্মেসীতে বিক্রি করার অভিযোগ রয়েছে।
তিনি যদিও এমবিবিএস ডাক্তার নন তবুও তিনি তার নেম প্লেটে লিখে রেখেছেন ডাঃ শাহজাহান মিয়া। তার রয়েছে প্রেসক্রিপশন প্যাড। দেখছেন জটিল রোগে আক্রান্তদের লিখছেন তার নিজের প্যাডে ভূরি ভূরি ঔষধ।
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রে আসা নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক রোগী বলেন, আমি শাহজাহান ডাক্তারের কাছে এসেছিলাম সে আমার কাছ থেকে ফি সহ ২৬০ টাকা চেয়েছেন আমি দুইশ টাকা দিয়েছি বাকি ৬০ টাকা পরে আসলে দিয়ে যেতে বলেছেন।
স্থানীয়দের আরো অভিযোগ এই স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে তিনি দীর্ঘ দিন ধরে থাকায় নির্বিঘেœ অনিয়মের মাধ্যেমে জ্ঞাত আয় বহিঃর্ভূত সম্পদ অর্জন করে কোটি টাকা খরচ করে জমি কিনে বিল্ডিং করে তা ভাড়া দিয়েছেন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে। তার নিজ জেলা পটুয়াখালী, মাদারীপুরেও রয়েছে তার আরও একটি বাড়ি, জানা যায় সেকমো শাহজাহানের নিজের মূখ থেকেই।
জয়নগর ইউনিয়নের সাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার শাহজাহান মিয়ার কাছে তার অনিয়ময়ের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কিছু বলতে রাজি হননি।
সাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার শাহজাহান মিয়ার অনিয়মের বিষয়ে শরীয়তপুর জেলার পরিবার পরিকল্পনার উপ-পরিচালক মোঃ সোহেল পারভেজ বলেন, শাহজাহান মিয়ার ব্যাপারে আমার কাছে লিখিত কোনো অভিযোগ নেই, যদি এধরনের ঘটনা ঘটিয়ে থাকে তাহলে তার বিচার হবে।