বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, ৮ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৬ই সফর, ১৪৪২ হিজরী
বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং
জাজিরা টিএনটি মোড়ে এলপিজি চালিত অটো সিএনজি শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে

শরীয়তপুর হোক শান্তিময় জনপদ : ইকবাল হোসেন অপু এমপি

শরীয়তপুর হোক শান্তিময় জনপদ : ইকবাল হোসেন অপু এমপি

শরীয়তপুরে বিআরটিএ থেকে রেজিস্ট্রেশন না পাওয়ায় এবং সড়কে বাস শ্রমিকদের বাঁধার মুখে পড়ায় সড়কে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে সিএনজি চালকরা। মঙ্গলবার (০১ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শরীয়তপুর-ঢাকা মহাসড়কের জাজিরা টিএনটি মোড়ে প্রায় সাড়ে ৩ শতাধিক সিএনজি চালক এ অবস্থান কর্মসূচি পালন করে।

কিন্তু বাস মালিক সমিতি ও আন্ত: জেলা বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়ন বলছে, জেলার মহাসড়ক ও আঞ্চলিক মহাসড়কে আইনগতভাবে এলপিজি চালিত সিএনজি চালানো যাবে না।

এলপিজি চালিত অটো সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক খান এ রুবেল মামুন ও সিএনজি চালকরা জানান, গতকাল সোমবার শরীয়তপুর শহরের প্রেমতলা এলাকায় বাস শ্রমিকরা তিনটি সিএনজির চালকদের আটকে রেখে মারধর করে। পরে পুলিশের সহযোগিতায় সিএনজি ও চালকদের উদ্ধার করা হয়। শুধু একটি ঘটনাই নয় অনেকদিন যাবত সিএনজি চালকদের বিভিন্নভাবে হয়রানি ও সিএনজি ভাঙচুর করছে বাস শ্রমিকরা। তাছাড়া কয়েক মাস যাবত শরীয়তপুরের বিআরটিএ’তে সিএনজি রেজিস্ট্রেশনের জন্য সমস্ত কাগজপত্র, ব্যাংক ড্রাফ জমা দিলেও বিআরটিএ রেজিস্ট্রেশন দিচ্ছে না। এসব দাবি আদায়ের লক্ষ্যে জেলার প্রায় সাড়ে ৩ শতাধিক সিএনজি চালক শরীয়তপুর-ঢাকা মহাসড়কে বসে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে।

এ সময় শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু ঘটনাস্থলে গিয়ে সিএনজি চালকদের দাবির কথা শুনে এবং তাদের দুইদিনের মধ্যে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন।

এদিকে আন্ত:জেলা বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. ফারুক চৌকিদার মুঠোফোনে বলেন, সিএনজি’র কোন রেজিস্ট্রেশন বা রোড পারমিট নাই। তাছাড়া মহাসড়ক ও আঞ্চলিক মহাসড়কে সিএনজির চলার অনুমতি নেই। তাই আমরা বাঁধা দিয়েছি। তিনি বলেন, গতকাল সোমবার দুপুরে জাজিরা টিএনটি মোড়ে আমাদের তিনটি বাস ভাংচুর করেছে সিএনজি চালকরা। ওই ঘটনায় আমরা জাজিরা থানায় অভিযোগ করেছি।

এ ব্যাপারে শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু বলেন, যারা বাস চালক ও সিএনজি চালক তারা সবাই শ্রমিক। শ্রমিকরা সংঘর্ষে জড়াবে এটা আমরা চাই না। শরীয়তপুর হোক শান্তিময় জনপদ, এটাই সাধারণ মানুষ সহ সকলের প্রত্যাশা । তাই প্রশাসন, বাস ও সিএনজি মালিকদের সঙ্গে কথা বলেছি। আগামি দুই দিনের মধ্যে সমস্যাটি সমাধান করা হবে।