সোমবার, ৮ই আগস্ট, ২০২২ ইং, ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১০ই মুহাররম, ১৪৪৪ হিজরী
সোমবার, ৮ই আগস্ট, ২০২২ ইং

জাজিরায় পদ্মা সেতুর সমান ব্যানার বানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

জাজিরায় পদ্মা সেতুর সমান ব্যানার বানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

শরীয়তপুরের জাজিরায় পদ্মা দৈর্ঘ্য ৬ দশমিক ১৫০ কিলোমিটার সমান ব্যনাার বানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন জাজিরা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগ সহ সভাপতি শিল্পপতি মোবারক আলী শিকদার।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) দুপুর ১ টায় ঢাকা শরীয়তপুর মহাসড়কের বিকেনগর থেকে নাওডোবা পর্যন্ত রাস্তার পাশে ব্যানারটিকে প্রদর্শন করা হয়।
সরেজমিনে দেখা যায়, বিশাল দীর্ঘ এই ব্যানারে দাড়িয়ে আছে স্থানীয় লোকজন। তারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ যে এত বড় একটি পদ্মা সেতু নির্মাণ করেছে। জাজিরার বিকে নগর ইউনিয়ন থেকে নাওডোবা ইউনিয়নের ৬ দশমিক ১৫০ মিটার রাস্তা জুড়ে ব্যানারিটি। ব্যানার টিতে প্রধানমন্ত্রী কে অভিনন্দন জানান এবং ব্যানারে পুরো টা জুরে ই রয়েছে পদ্মা সেতুর ছবি।

স্থানীয় হাসেন মালত বলেন, আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ। কারণ তিনি আমাদের কে একটি ব্রিজ উপহার দেয়। আমরা প্রধানমন্ত্রী প্রতি কৃতজ্ঞ।

জাজিরা পৌরসভার মেয়র ইদ্রিস মাদবর বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের দক্ষিণ অঞ্চলের মানুষকে পদ্মা সেতু নামে একটি বিশাল আকৃতির সেতু উপহার দিয়েছে। এজন্য আমরা তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ। জাজিরা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জেলাবাসীর পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশের জন্য পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য সমান একটি ব্যানার তৈরি করেছে।

জাজিরা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোবারক আলী শিকদার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদেরকে এত বড় একটি ব্রিজ উপহার দিয়েছে। যা আমাদের দক্ষিণ অঞ্চলের মানুষের সবচেয়ে অতীব প্রয়োজন ছিল। এটির মাধ্যমে আমরা যেই পরিমাণ উপকৃত হব ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। পদ্মা সেতুর কারনে বাংলাদেশের জিডিপির অর্জন বাড়বে। পাশাপাশি দ্রুত যোগাযোগ ব্যবস্থার একটি উন্নত হবে। তাই আমি ভাবলাম আমাদের জেলা বাসীর পক্ষ থেকে তাকে একটি ধন্যবাদ দেওয়া যায় কিনা। সবাই একই রকম জিনিস তৈরি করে সেই চিন্তা থেকে আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য পরিমাণ একটি ব্যানার তৈরি করেছি। যার মাধ্যমে আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ জানাই।


error: Content is protected !!