বৃহস্পতিবার, ৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ইং, ২৬শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৭ই রজব, ১৪৪৪ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ইং

ভারতীয় আটক নাগরিক সতেন্দ্র কুমার শরীয়তপুর কারাগারে মারা গেছেন

ভারতীয় আটক নাগরিক সতেন্দ্র কুমার শরীয়তপুর কারাগারে মারা গেছেন

পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্ত থেকে সন্দেহজনক গতিবিধির কারণে আটক ভারতীয় নাগরিক সতেন্দ্র কুমার মারা গেছেন।

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টায় শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। তিনি শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন শারীরিক জটিলতায় ভুগছিলেন।

শরীয়তপুর জেলখানার জেল সুপার আব্দুর রহিম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার সুমন কুমার পোদ্দার জানান, শ্বাসকষ্ট দেখা দেওয়ায় তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে আনা হয়। ১২টা ২৫ মিনিটে ডাক্তার লিনিয়া সাদিয়া তার প্রেসার মেপে ভর্তি করেন। ১২.৩০ মিনিটে তাকে নার্সরা গ্রহণ করেন। ১২.৪০ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

তিনি আরও জানান, রোগীর ময়নাতদন্ত ছাড়া জানা যাবে না এটা স্বাভাবিক না অস্বাভাবিক মৃত্যু। সূর্যের আলো না থাকার কারণে ময়নাতদন্ত করা যায়নি।

শরীয়তপুর জেলখানা সূত্রে জানা যায়, শরীয়তপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে সতেন্দ্র কুমারকে ২০২২ সালের ৮ অক্টোবর শরীয়তপুর জেলখানায় আনা হয়। শরীয়তপুর কারাগারে এখনও ৪৬ জন ভারতীয় নাগরিক আটক রয়েছেন। এর মধ্যে ৮ জন নারী।

মারা যাওয়া সতেন্দ্র কুমার ভারতের দিল্লী প্রদেশের সাথুরা মুলতানপুর জেলার চেয়াপুর গ্রামের চন্দ্রপালের সন্তান। তার বিরুদ্ধে জাজিরা থানায় মামলা করা হয়।

জেল সুপার আব্দুর রহিম জানান, মরদেহ শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের পর কারা কর্তৃপক্ষ ভারতীয় হাই কমিশনের সঙ্গে যোগাযোগ করে হস্তান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে।


error: Content is protected !!