সোমবার, ২৬শে অক্টোবর, ২০২০ ইং, ১০ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৮ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী
সোমবার, ২৬শে অক্টোবর, ২০২০ ইং
শরীয়তপুরে ইউপি চেয়ারম্যান চান মিয়া মাদবরের পুকুরে

তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী গোসল করতে গেলে পুকুরে ধর্ষণ চেষ্টা

তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী গোসল করতে গেলে পুকুরে ধর্ষণ চেষ্টা

শরীয়তপুরে তৃতীয় শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে (৯) ধর্ষণের চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে পালং মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ জানিয়েছেন আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ঘটনাটি ঘটেছে শরীয়তপুর সদর উপজেলার ডোমসার ইউনিয়নের সুজনদল গ্রামের। মেয়েটি স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষর্থী।

পালং মডেল থানা ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ১০ অক্টোবর শনিবার দুপুর ২টার দিকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান চান মিয়া মাদবরের পুকুরে ওই শিশু মেয়েটি একা গোসল করতে যায়। এই সময় একই গ্রামের দলিল উদ্দিন সরদারের ছেলে নাজমুল সরদার (২২) শিশু মেয়েটিকে মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক পুকুরের পার্শ্ববর্তী বাগানে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। শিশুটি গোসল করে বাড়ি ফিরতে দেরী হওয়ায় ওই শিশুটির মা পুকুর পাড়ে তাকে খুঁজতে গিয়ে মেয়ের চিৎকার শুনতে পায়। পরে এই শিশুটির মা ধর্ষকের হাত থেকে তার মেয়েকে রক্ষা করে। পরে মেয়েটির মা বাদী হয়ে ধর্ষণ চেষ্টাকারী নাজমুল সরদারকে আসামী করে পালং মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

ভিকটিমের চাচা বলেন, নাজমুল সরদার এলাকার বখাটে প্রকৃতির লোক। সে মাদকসহ বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত। প্রায় ১৫ দিন পূর্বে সে তার প্রতিবেশী এক গৃহবধুকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। পরে শালিশ দরবার শেষে স্থানীয় ইউপি সদস্য কবিরের উপস্থিতিতে প্রকাশ্যে জনসম্মুখে তাকে জুতাপেটা করা হয়। এবার আবার এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছে। আমিসহ এলাকাবাসী তার কঠিন শাস্তি দাবি করছি।

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, এই ঘটনায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ একটি মামলা দায়ের করেছে। আমরা আসামীকে গ্রেফতারের জন্য জোর চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি।