Thursday 13th June 2024
Thursday 13th June 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/rudrabarta.net/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

দু’টি কিডনিই বিকল, বাঁচার আকুতি শরীয়তপুরের ওয়াদুদের

দু’টি কিডনিই বিকল, বাঁচার আকুতি শরীয়তপুরের ওয়াদুদের

দিন মজুর ওয়াদুদ খানের (৩৮) দুটি কিডনিই বিকল হয়ে গেছে। বর্তমানে তার চিকিৎসা চলছে মাদারীপুর ক্যাম্পস কিডনি এন্ড ডায়ালাইসিস সেন্টারে।

তিনি বর্তমানে অধ্যাপক ডা. এম এ সামাদের তত্ত্বাবধানে নিয়মিত ডায়ালাইসিসসহ অন্যান্য চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছেন। চিকিৎসকেরা বলছেন, দ্রুত কিডনি ট্রান্সপারেন্ট না করানো গেলে তাকে বাঁচানো প্রায় অসম্ভব।

পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ব্যক্তি ওয়াদুদ খান। দুই সন্তান, স্ত্রী এবং বৃদ্ধা মা’কে নিয়ে ওয়াদুদ খান তার ছোট ভাইয়ের পড়াশোনা খরচও চালাতেন। বর্তমানে অর্থাভাবে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা খরচ চালাতে পারছে না পরিবারটি। দিন মজুর ওয়াদুদের জীবন বাঁচাতে সমাজের বিত্তবান ও দানশীল ব্যক্তিদের সাহায্য কামনা করেছেন পরিবারটি। তার চিকিৎসার জন্য এখনও প্রায় ২৫-৩০ লাখ টাকার প্রয়োজন।
ওয়াদুদ খান শরীয়তপুর সদর উপজেলার আংগারিয়া ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের খায়ের চর গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজ খান ও সুফিয়া বেগম দম্পতির বড় ছেলে।

ওয়াদুদ খানের দুলাভাই কেএম আইয়ূব জানান, ২০১৮ হঠাৎ জ্বর হয় ওয়াদুদের। স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে গিয়ে চিকিৎসা নেয়। কিন্তু জ্বর কমছিল না। পরে ঢাকা ইবনে সিনা হাসপাতালে পুরো বডি চেকাপ করলে কিডনি সমস্যা ধরা পরে। সেখানে চিকৎসকরা তাকে ভর্তি করে অপারেশনের মাধ্যমে ডায়ালাইসিস শুরু করে। কিছুতেই ভালো না হওয়ায়, বাংলাদেশের চিকিৎসকের পরামর্শে গত ২০১৯ সালের ২ জানুয়ারি ভারতের এ্যাপোলো হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে কিডনি বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ভ্যানকাতেজ রাজকুমার ওয়াদুদের চিকিৎসা করেন।

তিনি জানান, ওয়াদুদের চিকিৎসা করাতে হলে ভারতে ৩ মাস থাকতে হবে। এতে খরচ হবে বাংলাদেশী প্রায় ২৫ লাখ টাকা। এতে সম্পূর্ণ ভালো হতে পারে। পরে টাকা না থাকায় শরীয়তপুরে নিয়ে আসা হয় তাকে। সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা: অ্যাকাউন্ট নম্বর: ২১০১৪০১০১৫০২৫ আংগারিয়া বাজার শাখা, শরীয়তপুর। বিকাশ নম্বর: ০১৯২৩৭০৫৩৩০, ০১৭৪৪৪৮৫৩৯৩।