শুক্রবার, ৭ই অক্টোবর, ২০২২ ইং, ২২শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
শুক্রবার, ৭ই অক্টোবর, ২০২২ ইং

ভাঙ্গায় র‌্যাব অভিযানে বিকাশ প্রতারক চক্রের৩ সদস্য ইয়াবাসহ আটক

ভাঙ্গায় র‌্যাব অভিযানে বিকাশ প্রতারক চক্রের৩ সদস্য ইয়াবাসহ আটক

মাদারীপুর র‌্যাব-৮ ক্যাম্প কর্তৃক ফরিদপুর ভাঙ্গা হতে বিকাশ প্রতারক চক্রের সক্রিয় ০৩ সদস্য ইয়াবাসহ আটক। র‌্যাব-৮, সিপিসি-৩ মাদারীপুর ক্যাম্পের একটি বিশেষ আভিযানিক দল কোম্পানী অধিনায়ক ক্যাপ্টেন মোঃ খালেদ মাহমুদ এর নেতৃত্বে ১৫ মে ২০১৯ইং তারিখ রাত আনুমানিক ০৪.১৫ ঘটিকার সময় ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানাধীন ঈশ্বরদী গ্রাম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে বিকাশ প্রতার চক্রের সক্রিয় তিন সদস্যকে আটক করেন।

আটককৃত আসামীরা ফরিদপুর ভাঙ্গা থানার ঈশ্বরদী গ্রামের মোঃ লিয়াকত আলী কাজী পূত্র মোঃ মিরাজুল কাজী(২৩), মৃত সুরুজ শিকদারের পূত্র মোঃ এমদাদ শিকদার(২৪) ও সদরপুর থানার আমিরাবাদ মৃধাডাঙ্গী গ্রামের মোঃ জালালের পূত্র মোঃ শহিদ মৃধা। আটককৃত আসামীদের নিকট হতে ১৭ পিস নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য ইয়াবা এবং বিকাশ প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত মোবাইল ফোন-১৯টি, এবং সীমকার্ড- ৪৮টি উদ্ধার করা হয়। এসময় আটককৃত আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে ও স্থানীয় লোকজনের নিকট হতে জানা যায় যে, ধৃত আসামীগণ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী ও বিকাশ প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য এবং তারা দীর্ঘদিন যাবৎ ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান হতে বিকাশ প্রতারনার মাধ্যমে অসহায় লোকের নিকট থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়ে আসছে বলে স্বীকার করে। এছাড়াও বিভিন্ন বিকাশ গ্রাহকদেরকে পুরষ্কার দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারনার মাধ্যমে নানা কৌশলে বিকাশ গ্রাহকদের একাউন্ট থেকে তাদের নিজেদের বিকাশ একাউন্টে টাকা স্থানান্তর করে নেয়। ধৃত আসামীদেরকে উদ্ধারকৃত ইয়াবা ও অন্যান্য সরঞ্জামাদি ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানায় হস্তান্তর করা হয়। এ সংক্রান্তে ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানায় একটি মাদক ও একটি প্রতারনা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।


error: Content is protected !!