সোমবার, ৬ই জুলাই, ২০২০ ইং, ২২শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী
সোমবার, ৬ই জুলাই, ২০২০ ইং

শরীয়তপুর ছাত্রকল্যাণ সংস্থা কর্তৃক আয়োজিত কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা উদযাপন

শরীয়তপুর ছাত্রকল্যাণ সংস্থা কর্তৃক আয়োজিত কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা উদযাপন

গত ৭ জুন শুক্রবার শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার রাজনগর ইউনিয়নের রাজনগর সাফিয়া বেগম নূরানী হাফিজিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসার মাঠ প্রাঙ্গনে বিকাল ৩ টায় শরীয়তপুর ছাত্রকল্যাণ সংস্থা এর উদ্যোগে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা, আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ছাত্রনেতা, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের বর্তমান কেন্দ্রীয় উপকমিটির নেতা, অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজ সদস্য সৈয়দ মোহাম্মদ হেমায়েত হোসেন ও সাবেক ছাত্রনেতা, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের বর্তমান কেন্দ্রীয় উপকমিটির নেতা আখতারুজ্জামান জুয়েল মীর মালত।
সংগঠনের উপদেষ্টা মন্ডলির মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, শরীয়তপুর সরকারি কলেজের সাবেক শিক্ষক অধ্যাপক এম এ আজিজ মিয়া, শরীয়তপুর জেলা জজ কোর্ট এর সিনিয়র আইনজীবী অ্যাড. আলী আহাম্মদ খান, ম্যাগনাম ওপাস প্রধান নিবার্হী, বিশিষ্ট লেখক ও প্রকাশক এবং সিনিয়র সাংবাদিক আনোয়ার ফরিদী, ৮নং ক্রোকিরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবুল বাশার আল আজাদ, উত্তরা মাইলস্টোন কলেজ এর সহকারী অধ্যাপক সবুজ মাদবর। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ১২ নং পুনাই খাঁর কান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এস এম আজিজুল হক।
উক্ত অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতাও সভাপতি মো. তোফাজ্জল হোসেন। তিনি বলেন, শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড। জ্ঞান ভিত্তিক শিক্ষা ছাড়া কোনো জাতিই উন্নতি লাভ করতে পারে না। শিক্ষার্থীরা যাতে শিক্ষার অধিকার থেকে পিছিয়ে না পরে তাই মেধাবী ও দরিদ্র শিক্ষার্থীদের প্রায় আড়াই বছর যাবৎ প্রতিমাসে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করে আসছে সংগঠনটি। তিনি আরো বলেন, ২০২০ সালের মধ্যে গ্রন্থাগার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের জ্ঞান চর্চায় উদ্বুদ্ধ করা ও শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করা, ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষা বৃত্তি প্রদান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি শিক্ষা প্রসারের জন্য শিক্ষার্থীদের কম্পিউটার প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা এবং স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি চালু করবে।
অনুষ্ঠানে সৈয়দ মোহাম্মদ হেমায়েত হোসেন বলেন, সমাজের জন্য, দেশের জন্য, সেবামূলক কাজ করার জন্য যৌবন-কালই সবচেয়ে উত্তম সময়। তাই তারুণ্যেই আমাদের সেবামূলক কাজে উদ্দ্যোগী হতে হবে। সকলেরই মনে রাখতে হবে যে, পরার্থে আত্মোৎসর্গই মানব জীবনের সার্থকতা। মানুষের আত্মতৃপ্তির অন্যতম উপায় হচ্ছে মানবসেবা। তিনি সকলের প্রতি আহবান করেন যেন, দেশকে ভালোবেসে দেশের জন্য কাজ করে।
উক্ত অনুষ্ঠানে আখতারুজ্জামান জুয়েল মীর মালত বলেন, সভ্যতা সংস্কৃতি তথা উন্নয়ন অগ্রগতির বীজমন্ত্র হলো শিক্ষা। শিক্ষার গুরুত্বের কথা বলা বাহুল্য মাত্র। আর শিক্ষার গুরুত্বের কথা বিবেচনা করে শরীয়তপুর ছাত্রকল্যাণ সংস্থা এর মাধ্যমে সমাজকে শিক্ষার দিকে অগ্রসর করার জন্য সংগঠনের কর্মকান্ডকে সাধুবাদ জানায়।
এছাড়া অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, সহকারী পুলিশ সুপার আবুল বাশার মাদবর, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ স¤্রাট হোসেন, মো. টিপু মাদবরসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও শিক্ষকবৃন্দ। শরীয়তপুর ছাত্রকল্যাণ সংস্থা কর্তৃক ৬০ জন কৃতি শিক্ষার্থীর মাঝে সম্মাননা স্মারক ও পুরষ্কার বিতরণ করা হয়।