বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ ইং, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ ইং

শরীয়তপুরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সেমিনার

শরীয়তপুরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সেমিনার

শরীয়তপুরে “ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন”-২০০৯ অধিকতর প্রচারের মাধ্যমে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আলোচনা সভা ও সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শরীয়তপুর সার্কিট হাউজ সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের সহযোগিতায় এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, শরীয়তপুর সুযোগ্য জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের। প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের বলেন, এই আলোচনা সভা ও সেমিনারে উপস্থিত সকলেই ভোক্তা। আমরা সচেতন ভোক্তা নাগরিক না হওয়ার কারণে আমরা প্রতিনিয়ত প্রতারিত হচ্ছি। প্রশাসন থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ কেউ এ প্রতারণা থেকে বাদ নেই।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাই যে, তিনি ২০০৯ সালে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনটি পাস করেছেন। এ আইনে ভোক্তার সঠিক অধিকার সংরক্ষিত আছে। এ অধিকার ক্ষুন্ন হলে ভোক্তা প্রশাসনের নিকট তাদের অভিযোগের মাধ্যমে, নিজেদের অধিকার আদায় করতে পারবেন।
শরীয়তপুর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোতাকাব্বীর আহমেদের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, শরীয়তপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আল মামুন শিকদার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে ও শরীয়তপুর সিভিল সার্জন ডা: মো: খলিলুর রহমান।
অনুষ্ঠানে মূল নিবন্ধ উপস্থাপন করেন, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, শরীয়তপুর জেলা কার্যালয় এর সহকারী পরিচালক সুজন কাজী।
এ সময় জেলা পরিষদ সদস্য, শরীয়তপুর পৌরসভার কাউন্সিলরবৃন্দ, জেলা ইটভাটা মালিক, হাসপাতাল ও ক্লিনিকের মালিকসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মালিকরা উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে ভোক্তা অধিকার সম্পর্কে বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। তার মধ্যে নিরাপদ পণ্য বা সেবা পাওয়া, কোন পণ্য বা সেবা ব্যবহার ক্ষতিগ্রস্থ হলে ক্ষতিপুরণ পাওয়া, ভোক্তা অধিকার ও দায়িত্ব সম্পর্কে শিক্ষা লাভ, লিখিত অভিযোগ দায়ের, পণ্যের উপাদান, মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ, সর্বোচ্চ খুচরা বিক্রয় মূল্য ইত্যাদি জানা, নির্ধারিত মূল্যের অধিক মূল্য প্রদান না করা, পণ্য যথাযথ ওজন বা পরিমাণে পাওয়া ও প্রতিশ্রুত পণ্য বা সেবা যথাযথভাবে পাওয়াসহ ৬টি অধিকার ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ সহ প্রচলিত অন্যান্য চল্লিশটিরও অধিক আইনে বিধৃত।
সেমিনারে বক্তারা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন। শরীয়তপুর জেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা, ক্যাব-শরীয়তপুর এর প্রতিনিধি বৃন্দ, শরীয়তপুর চেম্বারস এর প্রতিনিধিবৃন্দ, ইট ভাটা মালিক সমিতির প্রতিনিধিবৃন্দ, ঔষধ ব্যবসায়ী সমিতির প্রতিনিধিবৃন্দ, স্বর্ণ ব্যবসায়ী সমিতির প্রতিনিধিবৃন্দ, বেকারী শিল্প মালিক সমিতির প্রতিনিধিবৃন্দ, পালং-আঙারিয়া-মনোহর বাজার বণিক সমিতির প্রতিনিধিবৃন্দ এবং প্রিণ্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


error: Content is protected !!