সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ ইং, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২২শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরী
সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ ইং

ইয়াবা ও ফেন্সিডিলসহ ২ জনকে আটক করেছে র‌্যাব

ইয়াবা ও ফেন্সিডিলসহ ২ জনকে আটক করেছে র‌্যাব

র‌্যাব-৮, সিপিসি-৩, মাদারীপুর ক্যাম্প কর্তৃক মাদারীপুর ও ফরিদপুর পৃথক অভিযান পরিচালনা করে ইয়াবা ও ফেন্সিডিলসহ দুইজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

র‌্যাব জানান, র‌্যাব-৮, সিপিসি-৩ মাদারীপুর ক্যাম্পের একটি বিশেষ আভিযানিক দল কোম্পানী অধিনায়ক স্কোয়াড্রন লীডার মোহাম্মদ সাদেকুল ইসলাম এর নেতৃত্বে ৩ ফেব্রুয়ারি মাদারীপুর জেলার সদর মডেল থানা ও ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানা এলাকায় পৃথক ২টি অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযান পরিচালনাকালে মাদারীপুর জেলার মাদারীপুর থানাধীন উত্তর পাঁচখোলা গ্রামস্থ রবিউল হাওলাদারের বসত বাড়ীর পশ্চিম পাশে পথের উপর অভিযান পরিচালনা করে আসামী রেজাউল কবির হাওলাদার(৩৫), পিতা-শামসুদ্দিন হাওলাদার, মাতাঃ মৃতা আমেনা খাতুন, সাং-উত্তর পাঁচখোলা(ওয়ার্ড নং-০২), থানা ও জেলা-মাদারীপুুরকে ১০৩(একশত তিন) পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ এবং ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানাধীন নুরপুর গ্রামস্থ মোস্তফা এর মুদি দোকানের সামনে পাঁকা রাস্তার উপর অভিযান পরিচালনা করে আসামী রাব্বি খয়রাদী@আদো(২১), পিতা-মৃত ইয়াদ আলী খয়রাদী, মাতা-কুন্নি বেগম, সাং-হাজরাহাটি(ভাঙ্গা পৌরসভা, ওয়ার্ড নং-০১), থানা-ভাঙ্গা, জেলা-ফরিদপুরকে ফেন্সিডিলসহ হাতে নাতে আটক করে, এসময় আটককৃত আসামীদের নিকট হতে ১৫(পনের) বোতল ফেন্সিডিল, মাদক ক্রয় বিক্রয় কাজে ব্যবহৃত ০১টি মোবাইল, ০২টি সীমাকর্ড উদ্ধার করা হয় আটককৃত আসামীদ্বয় দীর্ঘদিন যাবৎ মাদারীপুর এবং ফরিদপুর জেলার বিভিন্ন স্থানে ইয়াবা ও ফেন্সিডিলসহ বিভিন্ন ধরনের অবৈধ মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। ধৃত আসামীদ্বয়কে উদ্ধারকৃত ইয়াবা, ফেন্সিডিল এবং অন্যান্য আলামতসহ মাদারীপুর জেলার সদর মডেল থানা ও ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানায় হস্তান্তর করা হয়। এ সংক্রান্তে মাদারীপুর জেলার সদর মডেল থানা ও ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানায় পৃথক ০২টি মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এলিট ফোর্স র‌্যাব তার সৃষ্টির সূচনালগ্ন থেকেই সন্ত্রাস, চাঁদাবাদ, চোরাচালান ও মাদক এর বিরুদ্ধে আপোষহীন অবস্থানে থেকে নিরলস ভাবে কাজ করে আসছে। র‌্যাবের তথা আইন-শৃংখলা বাহিনীর নিয়মিত মাদক বিরোধী অভিযান দেশব্যাপী সমাদৃত। র‌্যাব-৮, মাদারীপুর গোয়েন্দা নজরদারীর মাধ্যমে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী সম্পর্কে তথ্য পায় এবং তাদেরকে গ্রেফতারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করিতে তৎপরতা শুরু করে। র‌্যাব-৮ এর এধরনের কার্যক্রম ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।